Shopping cart

No Widget Added

Please add some widget in Offcanvs Sidebar

  • Home
  • Engineering
  • সলিনয়েড কি? সলিনয়েড কীভাবে কাজ করে? সলিনয়েডের গঠন প্রণালী এবং কার্য-পদ্ধতি
Engineering

সলিনয়েড কি? সলিনয়েড কীভাবে কাজ করে? সলিনয়েডের গঠন প্রণালী এবং কার্য-পদ্ধতি

সলিনয়েড কি? সলিনয়েড কীভাবে কাজ করে? সলিনয়েডের গঠন প্রণালী এবং কার্য-পদ্ধতি
Email :22

একধরনের হেলিক্স কয়েল দ্বারা গঠিত এক প্রকার তড়িৎ চুম্বক যার দৈর্ঘ্য তার ব্যাসের চেয়ে বেশি হয়ে থাকে, এবং যা একটি নির্দিষ্ট চৌম্বক ক্ষেত্র তৈরি করে। যখন এটির মধ্যে দিয়ে তড়িৎ প্রবাহিত হয় তখন কয়েলটি একটি অভিন্ন চৌম্বক ক্ষেত্র তৈরি করতে পারে, তাকে সলিনয়েড (solenoid) বলে।

সলিনয়েড এর কাজ কি?

সলিনয়েডের কাজ হচ্ছে ম্যাগনেটের সাহায্যে কোন গেট খুলে দেওয়া। এটার দুটি অংশ আছে যথা: ১) ইলেকট্রিক্যাল ২) মেকানিক্যাল। ইলেকট্রিক্যাল অংশে পরিবাহীর প্যাঁচানো একটি কয়েল থাকে যাকে বলা হয় (সলিনয়েড কয়েল) যার কাজ হচ্ছে ম্যাগনেট তৈরি করা। যদি আপনি এক কথায় জানতে চান, তাহলে বলতে পারেন সলিনয়েডের মূল কাজ হচ্ছে চুম্বকপ্রবাহ তৈরী করা। আর আপনি যদি মেকানিক্যাল দিক থেকে চিন্তা করেন, সোলিনোয়েড একটি গেট ভাল্বের মতো পাইপের সাথে ফিটিং করা থাকে। গেট ভাল্বে যেমন একটি হ্যান্ডেল থাকে, এখানে হ্যান্ডেলের কাজটি একটি স্প্রিং এবং অরিন গ্যাসকেট ও লোহার স্টিক এর মাধ্যমে করা হয়।

সোলেনয়েড কি কাজে লাগে?
সলিনয়েডে সৃষ্ট চৌম্বক ক্ষেত্রের প্রাবল্য কি কি উপায়ে বৃদ্ধি করা যায়?
তড়িৎবাহী সলিনয়েড দন্ড চুম্বকের মত আচরণ করে কেন?

What is Solenoid? How to work Solenoid

নরম লোহার কোরের উপর বিদ্যুৎবাহী তারের কুণ্ডলী পেঁচিয়ে ইলেকট্রোম্যাগনেট তৈরি করা হয়। বিভিন্ন মেকানিজমকে পরিচালনা (actuate) করতে এসব ইলেকট্রোম্যাগনেট ব্যবহৃত হয়। যদি বিদ্যুৎবাহী কয়েলের চৌম্বকক্ষেত্রে একটি নরম লোহার বার (Soft iron bar) স্থাপন করা হয়, তবে বারটি চুম্বকায়িত হবে এবং ইলেকট্রোম্যাগনেট-এর কোর হিসেবে কয়েলের কেন্দ্রের দিকে টানবে। উপযুক্ত সংযোগ (linkage)-এর সাহায্যে চলমান কোরকে যান্ত্রিক ক্রিয়ার জন্য ব্যবহার করা যায়। চলমান কোরসহ অথবা কোরবিহীন এরূপ ইলেকট্রোম্যাগনেটকে সলিনয়েড বলা হয়। অপরপক্ষে স্থির কোরসহ ইলেকট্রোম্যাগনেটকে শুধু ইলেকট্রোম্যাগনেট-ই বলা হয় ।

সলিনয়েড বলতে কি বুঝ?

সলিনয়েড কিভাবে তৈরি করা হয়?

সাধারণত সলিনয়েডে দু’ভাগে বিভক্ত কোর (split core) ব্যবহৃত হয়। কোরের এক অংশ কয়েলের মধ্যে স্থিরভাবে আটকানো এবং অপর অংশ চলাচলের (move) জন্য মুক্ত রাখা হয়। কোরের দুটি অংশ সাধারণত স্প্রিং দ্বারা বিচ্ছিন্ন করা থাকে। কিন্তু কয়েলের মধ্যে বিদ্যুৎ প্রবাহিত হলে স্থির কোরের পোলারিটি চলমান কোরের পোলারিটি এর বিপরীত হয় এবং কোরদ্বয় আকৃষ্ট হয়ে পরস্পর সংযুক্ত হয়। এ আকর্ষণ বলকে কানেকটিং রডের মাধ্যমে যান্ত্রিক সংযোগকে রেসিপ্রোকেটিং গতি দান করে।

সোলেনয়েড কাকে বলে?

টরয়েড ও সোলেনয়েড কি?

সাধারণত সুইচ, ভালভ, সার্কিট ব্রেকার এবং কতকগুলো যান্ত্রিক ডিভাইস চালনা করতে সলিনয়েড ব্যবহৃত হয়। সলিনয়েড ব্যবহারের বড় সুবিধা হলো এটি যে-কোনো স্থানে স্থাপন করা যায় এবং ইলেকট্রনিক কন্ট্রোল ইউনিট দ্বারা দূর (remote) থেকে পরিচালনা করা যায়। যদিও সলিনয়েড এর কাজের পাল্লা (range) খুবই কম, তবুও স্থির কোর বিশিষ্ট ইলেকট্রোম্যাগনেট থেকে বেশি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Related Post